Walton Primo GM Mini স্মার্টফোনের ফুল হ্যান্ডস অন রিভিউ ( বিস্তারিত দেখে নিন এখুনি )

Gallery GM mini-1_2

সম্প্রতি বাজারে এসেছে দেশীয় স্মার্টফোন বাজারজাতকরণ প্রতিষ্ঠান ওয়ালটনের প্রিমো জিএম সিরিজের দ্বিতীয় স্মার্টফোন Primo GM Mini ;

এই ফোনের অন্যতম উল্লেখযোগ্য দিক হলো এর ব্যাটারী, দীর্ঘস্থায়ী ব্যাটারী ব্যাকআপের জন্য এতে ব্যবহৃত হয়েছে ৩,০০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ারের লিথিয়াম-আয়ন ব্যাটারী; এছাড়া সাম্প্রতিককালে বাজারে আসা ওয়ালটনের অন্যান্য ফোনের ন্যায় এই ফোনেও OTA বা Over The Air আপডেট সুবিধা দেওয়া হয়েছে, যার ফলে পিসির সাথে সংযুক্ত করা ছাড়াই এর সফটওয়্যার আপডেট করা যাবে। এসবের পাশাপাশি এই ফোনে প্রয়োজনীয় অন্যান্য সাধারণ ফিচার তো রয়েছেই।

Primo GM Mini এর ডিজাইন, ব্যাটারী ব্যাকআপ, গেমিং পারফরম্যান্স, বেঞ্চমার্ক স্কোর, ক্যামেরা পারফরম্যান্স প্রভৃতি নিয়েই আজকের রিভিউ ।

 

চলুন তাহলে দেখে নিই কী কী ফিচার থাকছে ওয়ালটন Primo GM Mini এ-

  • অ্যান্ড্রয়েড ৪.৪.২ কিটক্যাট অপারেটিং সিস্টেম
  • ৪.৫ ইঞ্চির আইপিএস ডিসপ্লে
  • ১.৩ গিগাহার্টজ গতির কোয়াডকোর প্রসেসর
  • ১ গিগাবাইটের র‍্যাম
  • মালি ৪০০ জিপিউ
  • ৫ মেগাপিক্সেলের রিয়ার ক্যামেরা
  • ০.৩ মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট ক্যামেরা
  • ওটিজি সাপোর্ট
  • ৮ গিগাবাইটের ইন্টারনাল মেমোরী
  • ডুয়েল সিম
  • ৩,০০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ারের লিথিয়াম-আয়ন ব্যাটারী

এবারে তাহলে বিস্তারিত রিভিউয়ের দিকে যাওয়া যাক-

IMG_20150104_130155

আনবক্সিং:
Primo GM Mini স্মার্টফোনটির বক্সে যা যা রয়েছে –

  • হ্যান্ডসেট
  • ব্যাটারী
  • চার্জার অ্যাডাপ্টার
  • ডাটা ক্যাবল
  • ওটিজি ক্যাবল
  • ইয়ারফোন
  • ইউজার ম্যানুয়াল
  • ওয়ারেন্টি কার্ড

অপারেটিং সিস্টেমঃ Primo GM Mini ফোনটিতে অপারেটিং সিস্টেম হিসেবে অ্যান্ড্রয়েডের আপডেটেড সংস্করণ অ্যান্ড্রয়েড ৪.৪.২ কিটক্যাট ব্যবহার করা হয়েছে।

 

বিল্ড কোয়ালিটি ও ডিজাইনঃ
প্রিমো জিএম মিনি স্মার্টফোনটি বেশ আকর্ষণীয় ডিজাইনের। এর উপরের অংশে রয়েছে ৩.৫ মিলিমিটার অডিও পোর্ট ও ইউএসবি ২.০ পোর্ট । ফোনটির একপার্শ্বের অংশে রয়েছে ভলিউম কী আর অন্য পার্শ্বে রয়েছে পাওয়ার কী।

১৩৩ মিলিমিটার উচ্চতার এই ফোনটি প্রস্থে ৬৬ মিলিমিটার আর এর পুরুত্ব ১০.৪ মিলিমিটার। ফোনটির ওজন মাত্র ১৫২ গ্রাম (ব্যাটারীসহ) ।

প্রিমো জিএম মিনি স্মার্টফোনটির পেছনের দিকে উপরের অংশে আছে রিয়ার ক্যামেরার লেন্স ও ফ্ল্যাশলাইট আর নিচের দিকে রয়েছে স্পীকার। এছাড়া সম্মুখভাগে ফ্রন্ট ক্যামেরা, সেন্সর, স্পীকার প্রভৃতি তো রয়েছেই। এর পাশাপাশি এই ফোনে হোম/মেনু, অপশন ও ব্যাক – এই তিনটি বাটন রয়েছে ।

 

ডিসপ্লেঃ এই ফোনে ৪.৫ ইঞ্চির আইপিএস ডিসপ্লে ব্যবহার করা হয়েছে, আর এর ডিসপ্লের রেজ্যুলেশন হলো ৪৮০x৮৫৪ পিক্সেলের।

 

ইউজার ইন্টারফেসঃ ওয়ালটনের Primo GM Mini ফোনটিতে অ্যান্ড্রয়েডের আপডেটেড সংস্করণ অ্যান্ড্রয়েড ৪.৪.২ কিটক্যাট ব্যবহৃত হয়েছে।

 

সিপিউঃ
সিপিউ হিসেবে এই ফোনে রয়েছে ১.৩ গিগাহার্টজ গতির কোয়াডকোর প্রসেসর, ফলে এই ফোনে মাল্টিটাস্কিং, গেমিং প্রভৃতি বেশ স্মুথলি করা যায়।

চিপসেটঃ
স্বল্পমূল্যের স্মার্টফোনসমূহে সাধারণত মিডিয়াটেক চিপসেট ব্যবহার করা হয়ে থাকে, ব্যতিক্রম ঘটেনি Walton Primo GM Mini এর ক্ষেত্রেও। এই ফোনে মিডিয়াটেকের MT6582 চিপসেট ব্যবহৃত হয়েছে ।

জিপিউঃ ওয়ালটন তাদের এই ফোনে মালি-৪০০ জিপিউ ব্যবহার করেছে। স্বল্পমূল্যের ফোন হিসেবে এই ফোনের গ্রাফিক্স কোয়ালিটি কিংবা গেমিং পারফরম্যান্স মন্দ নয়।

মেমোরীঃ Primo GM Mini স্মার্টফোনটিতে ৮ গিগাবাইট ইন্টারনাল মেমোরী দেওয়া হয়েছে, যার মধ্যে প্রায় ৬ গিগাবাইট ব্যবহারযোগ্য।

র‍্যামঃ এই ফোনে রয়েছে ১ গিগাবাইটের র‍্যাম, যার মধ্যে প্রায় ৯৬৫ মেগাবাইট ব্যবহারযোগ্য। এতে উল্লেখযোগ্য সংখ্যক অ্যাপস ইন্সটল করলেও র‍্যামের প্রায় অর্ধেক ফাঁকা থাকে।

ক্যামেরাঃ Primo GM Mini স্মার্টফোনটিতে রয়েছে ৫ মেগাপিক্সেলের রিয়ার ক্যামেরা, নয়েজবিহীন ছবি তোলা নিশ্চিত করতে এর ক্যামেরায় CMOS সেন্সর ব্যবহার করা হয়েছে। এছাড়া ক্যামেরায় অটোফোকাস, এলইডি ফ্ল্যাশ প্রভৃতি সুবিধাতো থাকছেই।

মাল্টিমিডিয়াঃ Primo GM Mini এ রয়েছে ৩.৫ মিলিমিটারের অডিও জ্যাক। এর সাথে যে হেডফোনটি দেওয়া হয় তার সাউন্ড কোয়ালিটি মোটামুটি মানের, এর অডিও সাউন্ড কোয়ালিটি বেশ সুন্দর।

আর এই ফোনে আইপিএস ডিসপ্লে ব্যবহৃত হওয়ায় এতে দারুণভাবে ভিডিও উপভোগ করা যায়। এই ফোনে ১০৮০ পি ফুল এইচডি ভিডিও কোন ধরণের ল্যাগ ছাড়াই চলে।

গেমিং পারফরম্যান্সঃ স্বল্পবাজেটের এই ফোনটি সাধারণ গেমিংয়ের জন্য মন্দ নয়। কোয়াডকোর প্রসেসর ও ১ গিগাবাইট র‍্যামবিশিষ্ট এই ফোনে নানা জনপ্রিয় গেম বেশ স্মুথলি খেলা যায়। এই ফোনে ক্যান্ডি ক্র্যাশ সাগা, কিংডম রাশ, মাইন ক্র্যাফট, টেম্পল রান ২ প্রভৃতি জনপ্রিয় গেম কোন ধরণের ল্যাগিং ছাড়াই খেলা গেছে।

 

কানেক্টিভিটিঃ
এই ফোনে ব্লুটুথ ৪.০, ওয়াইফাই, ওয়্যারলেস হটস্পট প্রভৃতি কানেক্টিভিটি সুবিধা রয়েছে। এছাড়া জিপিএস নেভিগেশন সুবিধাতো রয়েছেই।

IMG_20150104_130343

সিমঃ
ওয়ালটনের অধিকাংশ স্মার্টফোনের ন্যায় প্রিমো জিএম মিনি ফোনটিতেও রয়েছে ২টি সিম ব্যবহারের সুবিধা। এর উভয় সিমেই থ্রিজি সুবিধা উপভোগ করা যায়।

ব্যাটারীঃ ব্যাটারী ব্যাকআপ নিয়ে অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোন ব্যবহারকারীরা অধিকাংশ সময়ই চিন্তিত থাকেন, তাদের দুঃশ্চিন্তা লাঘবে ৪.৫ ইঞ্চি আইপিএস ডিসপ্লে সংবলিত Primo GM Mini এ ৩,০০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ারের লিথিয়াম-আয়ন ব্যাটারী ব্যবহার করা হয়েছে। অধিক মিলিঅ্যাম্পিয়ারের ব্যাটারী ব্যবহৃত হওয়ায় এর ব্যাটারী ব্যাকআপ নিঃসন্দেহে বেশ ভালো। একবার ফুল চার্জ দিলে টানা ৬ ঘন্টা থেকে ৭ ঘন্টা ইন্টারনেট ব্রাউজ করা যায়। এছাড়া একবার ফুল চার্জে টানা প্রায় ৮ ঘন্টা এইচডি ভিডিও উপভোগ করা যায়।আর সাধারণ ব্যবহারে অনায়াসেই ১-১.৫ দিন চলে যায়।

Screenshot_2015-01-04-12-20-11

বেঞ্চমার্কঃ কোন ডিভাইসের সক্ষমতা যাচাইয়ের জন্য সাধারণত বেঞ্চমার্ক স্কোর যাচাই করা হয়ে থাকে। Primo GM Mini এর বেঞ্চমার্ক স্কোর যাচাইয়ের জন্য বেঞ্চমার্ক যাচাইয়ের জনপ্রিয় অ্যাপ AnTuTu বেছে নেওয়া হয়েছিলো। AnTuTu তে এর স্কোর এসেছে ১৯,৪৭৩ ।

AnTuTu স্কোরের দিক থেকে Asus Zenfone 5 এর পরে Primo GM Mini এর অবস্থান।

Screenshot_2015-01-04-12-19-47

ওটিজিঃ ওয়ালটনের নতুন এই ফোনে রয়েছে OTG (USB On The Go) সুবিধা। ফলে ব্যবহারকারী এতে মাউস, কীবোর্ড, পেনড্রাইভ, এক্সটারনাল হার্ডডিস্কসহ বিভিন্ন ধরণের ইউএসবি ড্রাইভ ব্যবহার করতে পারবেন।

OTA copy

OTA আপডেট সুবিধাঃ এই ফোনে OTA বা Over The Air আপডেট সুবিধা রয়েছে, যার ফলে পিসির সাথে সংযুক্ত করা ছাড়াই এর সফটওয়্যার আপডেট করা যাবে।

মূল্যঃ ক্রেতাদের সাধ্যের কথা বিবেচনা করে আকর্ষণীয় ডিজাইন, দীর্ঘস্থায়ী ব্যাটারী ব্যাকআপ ও চমৎকার সব ফিচারসংবলিত Primo GM Mini স্মার্টফোনটির মূল্য ৮,৮৯০ টাকা নির্ধারণ করেছে ওয়ালটন কর্তৃপক্ষ।

 

Primo GM Mini এর ভালো লাগার দিকসমূহঃ

  • আকর্ষণীয় গড়ন
  • দীর্ঘস্থায়ী ব্যাটারী ব্যাকআপ
  • ওটিজি সাপোর্ট
  • Over The Air আপডেট সুবিধা

 

Primo GM Mini এর সীমাবদ্ধতাঃ
স্বল্পমূল্যের স্মার্টফোন প্রিমো জিএম মিনি এ অপেক্ষাকৃত দুর্বল মালি-৪০০ জিপিউ এর ব্যবহার ব্যতীত অন্য কোন উল্লেখযোগ্য সীমাবদ্ধতা চোখে পড়েনি। এছাড়া এর ফ্রন্ট ক্যামেরা ১.৩ মেগাপিক্সেল কিংবা ২ মেগাপিক্সেল হলে ভালো হতো।

 

ব্যাটারী ব্যাকআপকে প্রাধান্য দিয়ে যারা স্বল্পমূল্যে প্রয়োজনীয় নানা ফিচার সংবলিত স্মার্টফোন কিনতে চান তাদের জন্য ওয়ালটন Primo GM Mini হতে পারে আদর্শ পছন্দ। অন্যকথায় বলতে গেলে বলা যায় – স্পেসিফিকেশন, মূল্য, পারফরম্যান্স প্রভৃতি দিক বিবেচনায় বর্তমানে এই প্রাইস রেঞ্জের অন্যতম সেরা ফোন Primo GM Mini

Updated: February 9, 2015 — 11:33 am

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Copyright SmartZoneBD © 2013-2016, All Rights Reserved.