[X]

মডেমকে বিদায় বলুন, অ্যান্ড্রয়েডে হাইস্পীড ওয়াই-ফাই চালু করে নেট ব্যববহার করুন একাধিক ডিভাইসে!

অ্যান্ড্রয়েডে ডিভাইসকে খুব সহজেই ওয়াই-ফাই হটস্পট হিসেবে ব্যবহার করে প্রয়োজনের সময় মূহুর্তেই ইন্টারনেট শেয়ার করতে পারবেন আপনার কম্পিউটারে। কম্পিউটার ছাড়াও একই সাথে একাধিক ডিভাইসে আপনি আপনার স্মার্টফোন থেকে ইন্টারনেট শেয়ার করতে পারবেন।

How-to-use-Android-Phone-as-WiFi-Hotspot-front1

 

অনেকেই জানেন হয়তো অ্যান্ড্রয়েডে ডিভাইসকে খুব সহজেই ওয়াই-ফাই হটস্পট হিসেবে ব্যবহার করা যায়। তবে যারা এখনো জানাননা তাদের জন্য আমাদের আজকের টিউটোরিয়াল। চলুন দেখে নিই কিভাবে আপনি আপনার ডিভাইসে খুব সহজেই ওয়াই-ফাই হটস্পট চালু করতে পারবেন।

প্রথমেই আপনাকে কম্পিউটারের জন্য ওয়াই-ফাই অ্যাডাপ্টার কিনে নিতে হবে। তবে ল্যাপটপ, কিংবা অন্যান্য যেসব ডিভাইসে ওয়াইফাই রয়েছে সেসবে আপনি খুব সহজেই ইন্টারনেট শেয়ার করতে পারবেন। তবে তাঁর আগে নিচের প্রক্রিয়া সমূহ অনুসরণ করতে হবে।

প্রথমেই আপনার ডিভাইসের সেটিংস থেকে Wireless & networks > Tethering & portable hotspot -এ ক্লিক করুন। নিচের মতো স্ক্রিন আসবে

10268706_555185804595351_5305625384627436056_n-450x800

এবার Tethering & portable hotspot এ ক্লিক করলেই নিচের ছবির মতো ওয়াইফাই হট স্পট আসবে। এখানে টিক চিহ্ন দিতে হবে।

10247325_555185827928682_6165890534968008427_n-450x800

এবার আপনার ওয়াইফাই হট স্পট চালু তবে এক্ষেত্রে আপনাকে সেটিংস করে নিতে হবে কিছু নিরাপত্তার বিষয় নিশ্চিত রাখতে। যাতে করে আপনার ডিভাইসের ইন্টারনেট ওয়াফাই এর মাধ্যমে অপরিচিত কেউ ব্যবহার করতে না পারে। এ জন্য (জেলি বিন) আপনাকে ওয়াইফাই অংশে দুইবার ক্লিক করতে হবে। তাহলেই Tethering hotspot সেটিংস আসবে।

10246765_555185871262011_264131667683875731_n-450x800

আপনি যদি কোনও সেটিংস চেঞ্জ না করেন তবে আপনার ওয়াইফাই হটস্পট সবার জন্য উম্মুক্ত হয়ে যাবে এতে করে আপনার এলাকার সবাই আপনার ওয়াইফাই দিয়েই নেট ব্রাউজ করতে পারবেন। তাই এখানে আপনাকে যা করতে হবে, নেটওয়ার্ক এসএসআইডি টেক্সট বক্সে আপনার ওয়াই-ফাই হটস্পটের নাম নাম দিয়ে দিতে হবে। ল্যাপটপ থেকে যখন ওয়াই-ফাই অন করবেন, তখন ঐ এলাকায় থাকা সবগুলো ভিজিবল হটস্পটের তালিকা দেখাবে। সেখান থেকে আপনার কোনটি তা বোঝার জন্যই এই নাম দেয়া হয়ে থাকে।

এর পর আপনাকে সিকিউরিটি ড্রপ-ডাউন লিস্টে ওপেন ও WPA2 PSK এই দুই ধরনের চয়েস থেকে WPA2 PSK নির্ধারণ করে দিতে হবে। ওপেন হচ্ছে কোনো পাসওয়ার্ড ছাড়াই হটস্পটে কানেক্ট হওয়ার পদ্ধতি। আর WPA2 PSK হচ্ছে সবচেয়ে নিরাপদ পদ্ধতি।

এবার পাসওয়ার্ড ফিল্ডে ন্যূনতম ৮ অক্ষর বা বর্ণবিশিষ্ট পাসওয়ার্ড দিতে হবে। এবং সেভ দিয়ে বেরিয়ে আসুন। আবার সেটিংস থেকে Wireless & networks > Tethering & portable hotspot আবার দেখেনিন ওয়াইফাই তে অন আছে কিনা। এখন আপনি আপনার ল্যাপটপের, কম্পিউটারের কিংবা অন্যান্য ডিভাইসের ওয়াইফাই চালু করুন ডিভাইস সার্চ করলেই আপনার ডিভাইসের নাম দেখতে পাবেন সেখানেই আপনার ওয়াইফাই হটস্পট দেখাচ্ছে। সেখান থেকে আপনার নামে ক্লিক করে পাসওয়ার্ড যেটা দিয়েছিলেন তা দিলেই আপনার ডিভাইস মোবাইলের অ্যান্ড্রয়েডে হাইস্পীড ওয়াই-ফাই সংযোগ পেয়ে যাবে।

এখেত্রে আপনাকে অবশ্যই আপনার পাসওয়ার্ড নিরাপদে রাখতে হবে, মনে রাখবেন আপনার আশেপাশের অনেকেই ওয়াইফাই হটস্পট হিসেবে আপনার ডিভাইস দেখতে পাবে। কেউ যদি আপনার হটস্পটের পাসওয়ার্ড জেনে যায় তবে চুপি চুপি আপনার ডিভাইস থেকে ডাটা ব্যবহার করতে পারে। তাই পাসওয়ার্ড মাঝে মাঝে পরিবর্তন করুন।

 

 

 

Updated: October 31, 2014 — 12:56 pm

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Copyright SmartZoneBD © 2013-2016, All Rights Reserved.